৯ম শ্রেণি এসাইনমেন্ট এসাইনমেন্ট সকল শ্রেণি

৯ম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট নমুনা সমাধান ২০২১ ( ১২তম সপ্তাহ)

নবম শ্রেণির সকল সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট প্রশ্ন ও নমুনা উত্তর । ৯ম শ্রেণির ১২তম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমন্টে নমুনা সমাধান আমাদের ওয়েবসাইটে যুক্ত করা হয়েছে । উল্লেখ্য যে, বাংলা সকল বিভাগের (বিজ্ঞান , মানবিক, ব্যবসায় শিক্ষা) জন্য আবশ্যিক নির্ধারিত কাজ । সকল সপ্তাহের বাংলা অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান এখান থেকে দেখা যাবে ।

৯ম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট নমুনা সমাধান ২০২১

করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবকালীন সংকটময় পরিস্থিতিতে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যেতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বাের্ড (এনসিটিবি) কর্তৃক প্রণয়নকৃত ৬ষ্ঠ থেকে ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য সাপ্তাহিক এসাইনমেন্ট কার্যক্রম চালু করা হয় । প্রতি সপ্তাহে বিভিন্ন বিষয়ের উপর এসাইনমেন্ট প্রশ্ন প্রকাশ করা হয় এবং সপ্তাহ শেষে লিখিত এসাইনমেন্ট নিজ নিজ বিদ্যালয়ে জমা দিয়ে পরবর্তী সপ্তাহের এসাইনমেন্ট নিতে হয় । সূত্রমতে, চলমান এসাইনমেন্ট কার্যক্রম মোট ২০ সপ্তাহ পর্যন্ত চলবে ।

নবম শ্রেণির ১২তম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট নমুনা সমাধান

প্রতি সপ্তাহে গ্রীড অনুযায়ী বিষয় নির্ধারণ করা হয় এবং দ্বাদশ সপ্তাহে আবশ্যিক বাংলা বিষয়কে নির্বাচন করা হয়েছে ।

৯ম শ্রেণির বাংলা ৪র্থ অ্যাসাইনমেন্ট এনসিটিবি প্রদত্ত মূল বইয়ের হেমচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায় রচিত কবিতা জীবন-সঙ্গীত থেকে নেওয়া হয়েছে ।

নির্ধারিত কাজ : ভাবসম্প্রসারণ কর:  ” সংকল্প করেছ যাহা, সাধন করহ তাহা, রত হয়ে নিজ নিজ কাজে। “

” সংকল্প করেছ যাহা, সাধন করহ তাহা, রত হয়ে নিজ নিজ কাজে। “

সাফল্যের সাথে যেকোনাে কাজ সম্পন্ন। করতে হলে, চাই দৃঢ় প্রতিজ্ঞ প্রতিজ্ঞা বা সংকল্প ব্যতীত পৃথিবীতে কোন কাজকেই সম্পন্ন করা সম্ভব নয়।

জীবনে সাফল্য লাভের জন্য দরকার বিপদ মােকাবেলা করা আর সংকল্পে দৃঢ় থাকা। বুদ্ধিমানেরা সংকল্প করে বর্তমানের ভাবনা ভাবেন। কেননা অতীত নিয়ে পড়ে থাকার কোন মানে হয় না। বরং তা মানুষের জীবনকে স্থবির ও জড় করে দেয়। তাছাড়া কেবল অতীত নিয়ে ভাবলে অনেক সময় ভবিষ্যতের পাথেযও অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। একজন মানুষকে বর্তমানের সর্বোত্তম ব্যবহারই সফল করে তুলতে পারে। তাইতাে বুদ্ধিমানেরা সংকল্প করে বর্তমানের সর্বোচ্চ ব্যবহার করে।

অতীত জীবনের সুখ স্মৃতি রােমন্থন করে কারাের কাতর হওয়া উচিত নয়। সুখের প্রতিমা গড়ে অজানা ভবিষ্যতের জন্য অপেক্ষা করাও বােকামি। সময়ের কাজ সময়ে করা উচিত। ভবের সংসারে মানব জীবন অত্যন্ত মূল্যবান। এখানে মিথ্যা সুথের প্রতিমা গড়ে কোন লাভ নেই। অবশ্য মানব জীবনের উদ্দেশ্যও তা নয়। সংসারে বাস করতে হলে সংসারের দায়িত্ব সুচারুরূপে পালন করতে হবে। কেননা বৈরাগ্য সাধনে মানুষের মুক্তি নেই। মানুষের জীবন কেবল নিছক স্বপ্ন নয়। আর এ পৃথিবীকে কেবল স্বপ্ন ও মায়ার জগত বলা চলে না। অতীত সুখের দিন ও অনাগত  ভবিষ্যতের কথা ভেবে বর্তমানকে বাদ দিলে চলবে না।

বর্তমানেই বর্তমানের কাজ করে যেতে হবে। আমাদের জীবন যেন শৈবালের শিশির বিন্দুর মতাে ক্ষণস্থায়ী। সুতরাং মানুষকে এ পৃথিবীতে সাহসী যােদ্ধার মতাে সংগ্রাম করে বেঁচে থাকতে হবে। আর বেঁচে থাকার জন্যই সংকল্প অনুসারে  কাজ করতে হবে। বিপুলা পৃথিবীর জ্ঞানভান্ডার অসীম, কর্মযজ্ঞও অপরিসীম। কোন ব্যক্তি এই জ্ঞানভান্ডার নিঃশেষ করতে পারেনা অথবা কর্মযজ্ঞও সমাপ্ত করতে পারে না।  ঠিক এই কারণে সকলেরই সমযের মূল্য সম্বন্ধে সচেতন হওয়া উচিত।

যদিও কালের প্রবাহে মানুষের জীবন শৈবালের নীরের মতাে ক্ষণস্থায়ী, তবুও স্বল্পকালিন এ জীবনে স্বপ্নদেখার মাধ্যমে। সংগ্রাম করে টিকে থাকার মধ্যেই রয়েছে মানব জীবনের | সার্থকতা। পরিশেষে বলা যায় যে, আমরা যা করতে চাই, তার করার জন্য দরকার একটি শক্তিশালী সংকল্প। শুধু সংকল্প করলেই চলবে না, সে অনুযায়ী কাজ করে শেষ করতে হবে। তাহলেই যে কোন কাজের সাফল্যের স্বাদ আস্বাদন করা যাবে।


অন্যান্য বিষয়ের এসাইনমেন্ট সমাধান দেখুন এখান থেকে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *